অনলাইনে টাকা আয়

অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২২ | ঘরে বসে টাকা আয় করুন

Rate this post

অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২২ | ঘরে বসে টাকা আয় করুনঅনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২২ | ঘরে বসে টাকা আয় করুন কেননা প্রযুক্তি এখন আমাদের হাতের মুঠোয়। “অনলাইনে ইনকাম করার উপায়” বিষয়টা নিয়ে আমার ব্লগে প্রথম লেখা হলেও শব্দটার সাথে অপনারা অনেক আগে থেকেই পরিচিত।

শুরুর আগে একটি কথা বলে নেয়া ভালো।

“অনলাইনে টাকা ইনকাম, অনলাইনে ইনকাম করার উপায়, মোবাইল দিয়ে টাকা আয়” যাই বলুুুননা কেন, সবার আগে প্রয়োজন ‘ধৈর্য”।

কেননা ধৈর্য ছাড়া আপনি যদি চান রাতারাতি ১ দিনেই কাজ করে টাকা আয় করা শুরু করে দিবেন, তাহলে তা নিতান্তই হাস্যকর বিষয় হবে।

এবং আজকের পোস্টটি তাহলে আপনার জন্য নয়। একটু ধৈর্য ধরে, নিয়ম মেনে কাজ করলেই এই আয় হতে পারে আপনার ভবিষ্যত।

 

মূলকথা

অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

১। ব্লগিং করে টাকা ইনকাম
২। ইউটিউবিং করে টাকা ইনকাম
৩। ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা ইনকাম
৪। প্রশ্ন-উত্তর ওয়েবসাইট থেকে টাকা ইনকাম
৫। গ্রাফিক্স ডিজাইন করে টাকা ইনকাম
৬। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে থেকে টাকা ইনকাম
৭। এফিলিয়েন্ট মার্কেটিং করে টাকা ইনকাম

এছাড়াও আরো কিছু উপায়ে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা যায়। যেমন:


(i) কিছু অ্যাপস থেকে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়
(ii) এড দেখে টাকা ইনকাম
(iii) ছবি sell করে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়
(iv) ডাটা এন্ট্রি করে টাকা ইনকাম
(v) Paid To Click এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম

তবে আমি আপনাদের পরামর্শ দিবো প্রথম ৭টি পয়েন্টের যেকোনো একটি বেছে নিতে। কেননা এগুলো একটু সময় বেশি লাগলেও নিশ্চিত পেমেন্ট দিবে, ক্ষনস্থায়ী নয়।

আরো জানুন: ব্লগিং করে টাকা আয় ২০২২। ব্লগিং ওয়েবসাইট

১। ব্লগিং করে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২২ | ঘরে বসে টাকা আয় করুন

 

আমার আগের পোস্টটিই ছিলো ব্লগিং করে টাকা ইনকাম নিয়ে। তাই চাইলে ঘুরে আসতে পারেন আগের পোস্টটিতে। তাহলে বুঝতে সুবিধা হবে।

আমার আগের পোস্ট: “ব্লগিং করে টাকা আয় করার উপায় 2022”

ব্লগিং কি?

আপনি কি জানেন? ব্লগিং হলো এমন একটি আর্নিং প্রোসেস যার মাধ্যমে আপনি আপনার নিজের মতামত ব্যাক্ত, যেকোনো বিষয় নিয়ে লেখালেখি করতে পারবেন এবং গুগল এডসেন্সের এপ্রুভাল পেয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

ব্লগিং এর জন্য জনপ্রিয় সাইট কোনটি?

আর ব্লগিং এর জন্য সবচেয়ে জনপ্রিয় সাইট হলো ব্লগার (Blogger)

ব্লগিং শুরু করবো কিভাবে?

চলুন জেনে নেই কিভাবে ব্লগিং শুরু করবেন।

ব্লগার (Blogger) গুগলের একটি বিশ্বস্ত সাইট। যেহেতু গুগলের প্রোডাক্ট, তাই এখানে অবশ্যই জিমেইল একাউন্ট লাগবে।

আর ব্লগার এর লিংকে চলে গেলেই এখানে সহজ কিছু ধাপ পূরণ করে একাউন্ট খুলতে পারবেন।

এজন্য আপনাকে ব্লগের নাম, ব্লগ address, জিমেইল এর মতো সহজ ধাপগুলো শেষ করতে হবে।

আর এই ধাপগুলি খুব সহজ যা আপনারা একবার দেখলেই পারবেন। তারপরও যদি দরকার হয়, কমেন্টে লিখলে পরবর্তী কন্টেন্টটি ব্লগারে একাউন্ট খোলার বিষয়েই লিখবো। 

ব্লগিং করে টাকা আয়

এখন আসি কিভাবে ব্লগিং করে টাকা আয় করা যায় সে বিষয়ে। আপনারা যারা আমার আগের পোস্টটি (ব্লগিং করে টাকা আয় করার উপায়) পড়েছেন তারা নিশ্চয়ই জানেন, ব্লগিং করে টাকা আয় করার মূূূল উৎস হলো গুগল এডসেন্স।

আরো পড়ুন: ব্লগিং করে টাকা আয় ২০২২। ব্লগিং ওয়েবসাইট

আর কিছুুু শর্ত পূূরণ করে খুব সহজেই এডসেন্সের এপ্রুভাল পেয়ে টাকা আয় করতে পারবেন।

২। ইউটিউবিং করে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২২ | ঘরে বসে টাকা আয় করুন

 

আমরা সবাই কমবেশি জানি, ইউটিউবিং করে টাকা আয় করা যায়। কিন্তু তা কিভাবে করে তা অনেকেই জানেন না। কিন্তু বিষয়টি খুবি সহজ। কেননা এতে গুগলের একাউন্ট থাকা ছাড়া আর তেমন কিছুই লাগে না। 

ইউটিউব চ্যানেল খুলবো কিভাবে?

তাই প্রথমে গুগলের একাউন্টটি দিয়ে লগইন করে নিন।

চ্যানেলের একটি ইউনিক নাম দিয়ে খুব সহজেই ইউটিউব চ্যানেল খুলে নিন।

ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা ইনকাম করার উপায়

তারপর আপনার করা ভিডিও আপলোড দিয়ে খুব সহজেই টাকা আয় করুন। আর এ ক্ষেত্রেও গুগল এডসেন্সের সাহায্য লাগবে। 

তাই ভিডিও আপলোড দেওয়ার মাধ্যমে ও ইউটিউব এর নীতিমালা মেনে, এডসেন্সের এপ্রুভাল পাউয়ার মাধ্যমে আপনি ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে পারেন।

আর গুগল এডসেন্সে সহজেই এপ্রুভাল পাউয়ার উপায় নিয়ে আমি আরো আলোচনা করবো। কিন্তু আগের পোস্টে কিছুটা আলোচনা করেছি।

৩। ফ্রিল্যান্সিং করে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২২ | ঘরে বসে টাকা আয় করুন

 

ফ্রিল্যান্সিং কি?

ফ্রিল্যান্সিং হলো ইন্টারনেটের মাধ্যমে অন্য কারো দ্বারা নিযুক্ত না হয়ে স্বাধীনভাবে কাজ করার মাধ্যম।

যেখানে ফ্রিল্যান্সাররা স্ব-নিযুক্ত অর্থাৎ নিজেরা স্বাধীন।

ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো?

এছাড়াও, ফ্রিল্যান্সিং শেখা মানেই হলো ফ্রিল্যান্সিং এর দক্ষতাগুলো ভালোভাবে আয়ত্ত করা। তাই নিচের পোস্টটি পড়ে খুব সহজেই জেনে নিন, ‘ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো’ সেই সম্পর্কে।

ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে জানুন: ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো 2022। ফ্রিল্যান্সিং কি?

ফ্রিল্যান্সিং ইনকাম

ইন্টারনেট জগতে টাকা ইনকাম করতে চায় কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে সঠিক ধারণা নেই, এমন মানুষ আসলে খুজে পাউয়া দুষ্কর।

কেননা বর্তমান পৃথিবীতে ঘরে বসে কিছু দক্ষতার প্রয়োগ ঘটিয়ে টাকা আয় করা, এক নিত্য পরিচিত ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। 

বর্তমানে কোনো দেশের যেকোনো প্রতিষ্ঠান বা ব্যাক্তির ওয়েবসাইট ডিজাইন, ওয়েবসাইটের উন্নয়ন, ওয়েবসাইট তৈরি, ওয়েবসাইটে নানা তথ্য সংযুক্ত করা ইত্যাদি কাজ নিজেরা না করে অন্য কোনো দেশের অভিজ্ঞ কোনো ব্যাক্তিকে দিয়ে কাজটি করিয়ে নেয়।

এভাবে অনলাইনে অন্য কোনো দেশের অভিজ্ঞ কোনো ব্যাক্তিকে দিয়ে নির্দিষ্ট পারিশ্রমিকেত বিনিময়ে কাজটি করিয়ে নেওয়াকে আউটসোর্সিং বা ফ্রিল্যান্সিং বলে।

ফ্রিল্যান্সিং চাকরি

এভাবে ফ্রিল্যান্সিং অনেকের পেশায় রূপ নিয়েছে। আর এটা অস্বাভাবিক কিছু না, কেননা কিছু দক্ষতার মাধ্যমে যদি টাকা আয় করা যায় তাতে মন্দ কিসের। আর এসব কাজ করার অনেক ক্ষেত্র আসে।

তার মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় সাইট হলো – ফ্রিলান্সারআপ ওয়ার্ক’ ইত্যাদি।

আজকে শুধু ‘ফ্রিলান্সার’ নিয়েই। ফ্রিল্যান্সার ওয়েবসাইটে একটা একাউন্ট খুলে তারপর কাজ করতে হবে। তবে এখানে একাউন্ট খোলা কঠিন কোনো কিছু না।

ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন

এজন্য মূলত প্রয়োজন দক্ষতা। এছাড়াও একটি কম্পিউটার থাকলে শুরি করে দিতে পারেন এখনই।

ফ্রিল্যান্সিং একাউন্ট কিভাবে খুলব?

একটা গুগল একাউন্ট দিয়ে খুুব সহজেই ফ্রিল্যান্সার ওয়েবসাইটে একাউন্ট খোলা যায়।

গুগল একাউন্ট থাকলে শুধুমাত্র জিমেইল একাউন্ট আর পাসওয়ার্ড দিয়ে সাইন আপ করলেই একাউন্ট খোলা হয়ে যাবে।

আর সকল তথ্য আপনি আপনার জিমাইলেই পেয়ে যাবেন। 

কিন্তু একাউন্ট খোলার মাধ্যমেই কাজটি সীমাবদ্ধ নয়। আপনাকে আরও কিছু কাজ করতে হবে।

মূলত আপনার দক্ষতা সম্পর্কে জানানোটাই এই ধাপের কাজ। আর এই ওয়েবসাইটে বিশ্বের কোটি কোটি ফ্রিল্যান্সাররা কাজ করে যাচ্ছে,  তাই এটি একটি বিশ্বস্ত সাইট।

এরপর আপনার প্রোফাইলে কিছু ডাটা এন্টি দিয়ে আপনার দক্ষতায় কিছু দক্ষতা নির্বাচন করতে হবে।

যেমন: আপনি যদি লেখালেখিতে খুব ভালো হন বা ভালো ওয়েব ডেভেলপার হন বা লোগো ডিসাইনার হন বা কোনো গ্রাফিকস ডিজাইনার হন তাহলে আপনার জন্য সকল ক্ষেত্রেই রয়েছে অফুরন্ত সুযোগ।

তারপর কাজ বুঝে আপনি বিট করে রাখলে পাব্লিশার তার পছন্দমতো একজনকে তার কাজটি করার জন্য হায়ার করবে। 

তাই ব্যাপারটা একটু ধৈর্যসাপেক্ষ হলেও সফলতার আশা অনেকটাই বেশি। আর আপনাকে হায়ার করলে আপনি তার সাথে যোগাযোগ করে কাজটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে করে জমা দিলে আপনার একাউন্টে পেমেন্ট চলে আসবে।

তবে কাজটি একটু কষ্টকর হলেও কিছুদিন যাউয়ার পর আপনি মানিয়ে নিতে পারবেন।

৪। প্রশ্নোত্তর ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

ইন্টারনেটে এমন অনেক ওয়েবসাইট আসে যেমন: Quora 

৫। ছবি বিক্রির মাধ্যমে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

অনেক ওয়েবসাইট এবং যেখানে নিজের ক্যামেরা বা মোবাইল দিয়ে তোলা ছবি সাবমিট করে তা থেকে বিক্রি বা ডাউনলোড করা অনলাইনে ইনকাম করার উপায়।

এমন অনেক ওয়েবসাইট আসে, যেখানে খুব সহজেই নিজের তোলা ছবি সাবমিট করা যায়। এমনকি সেখানে একাউন্ট খোলার পদ্ধতিও খুব সহজ। Shutter stock তেমনই একটি ওয়েবসাইট যেখানে শুধুমাত্র নিজের ছবি সাবমিটের পর অল্প কিছু সময়ের মধ্যেই রিভিউ দিয়ে দেয়।

ছবিটি এপ্রুভ হলে তা প্রতি ডাউনলোড এর জন্যও টাকা পাউয়া যাবে এবং তা বিক্রি হলে টাকা জমা হবে আপনার একাউন্টে। পরে ৩৫ ডলার হলে টাকা উঠাতে পারবেন।

৬। গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর মাধ্যমে অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং এর অন্যতম একটি যোগ্যতা হয়ে দাড়িয়েছে গ্রাফিক্স ডিজাইন। গ্রাফিক্স ডিজাইন যানা থাকলে অনেক ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট অনলাইনে ইনকাম করার উপায়।

 

অন্যান্য

এছাড়াও ‘এফিলিয়েন্ট মার্কেটিং’, ‘সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম থেকে’, ‘এড দেখে টাকা ইনকাম‘ এবং আরো অনলাইনে ইনকাম করার উপায় রয়েছে।

তবে আজকের পর্বে আর নয়। পরবর্তী পর্বে আলোচনা করবো।

শেষকথা

অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২২, ঘরে বসে আয় করুন, মোবাইল দিয়ে টাকা আয়, টাকা আয় করার উপায় ২০২১, মোবাইলে আয় বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করবো। 

“অনলাইনে ইনকাম করার উপায়” বিষয়টি নিয়ে আমার পরবর্তী পোস্টগুলো পেতে আমাদের সাথেই থাকুন। আসসালামু আলাইকুম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button